কুরআনে আরবী শব্দ রাজুল (পুরুষ) এবং ইমরা (নারী) কি সমান সংখ্যক বার?

ইসলামী লেখকরা সাধারণ মুসলিম জনতার ব্রেইনওয়াশ করে তাদের আরও ধর্মান্ধ করে রাখার উদ্দেশে এবং অমুসলিমদের সামনে ইসলামকে ঐশ্বরিক ধর্ম হিসেবে উপস্থাপন করে তাদের ব্রেইনওয়াশ করার উদ্দেশে তথাকথিত কিছু শব্দসংখ্যা গণনার মিরাকল উপস্থাপন করে। তার মধ্যে একটি তথাকথিত সংখ্যার মিরাকলের দাবি এরকম যে, কুরআনে নাকি আরবী শব্দ রাজুল যার অর্থ পুরুষ এবং আরবী শব্দ ইমরা যার অর্থ নারী উভয়ই ২৪ বার অর্থ্যাৎ, সমান সংখ্যকবার উল্লেখিত হয়েছে, যা নাকি প্রমাণ করে, ইসলামে নারী ও পুরুষের অবস্থান সমান। আবার ঠিক একইরকম আরেকটি দাবি এরকম যে, কুরআনে নাকি “নারী” ও “পুরুষ” উভয় শব্দই ২৩ বার করে উল্লেখিত হয়েছে এবং যেহেতু, ভ্রূণ গঠনে ২৩টি ক্রোমোজম মায়ের কাছ থেকে আসে ও ২৩টি ক্রোমোজম বাবার কাছ থেকে আসে সেহেতু, কুরআন নাকি “নারী” ও “পুরুষ” শব্দ ২৩ বার করে উল্লেখ করে এই বৈজ্ঞানিক তথ্য ১৪০০ বছর আগেই দিয়েছে। অন্যান্য সকল মিরাকলের দাবির মতো এই দুটি মিরাকলের দাবিও যে ইসলামী লেখকদের মিথ্যাচারের উদাহরণ ছাড়া কিছুই না সেটাই এই প্রবন্ধে তুলে ধরছি।

পুরুষ – রাজুল (رجل)

প্রথমে আমরা পুরুষ অর্থে ব্যবহৃত শব্দসমূহ গণনা করবো যাদের মূল (رجل), যার অর্থ “পুরুষ” :

 

সম্পূর্ণ গণনাআয়াতআরবী শব্দঅনুবাদবচন
২:২২৮وَلِلرِّجَالِএবং তাদের ওপর পুরুষদেরবহুবচন ১
২:২৮২رِّجَالِكُمْতোমাদের আপন পুরুষবহুবচন ২
২:২৮২رَجُلَيْنِদুজন পুরুষদ্বিবচন ১
২:২৮২فَرَجُلٌতাহলে একজন পুরুষএকবচন ১
৪:১رِجَالًاএকটি মাত্র ব্যাক্তিবহুবচন ৩
৪:৭لِّلرِّجَالِপুরুষদেরবহুবচন ৪
৪:১২رَجُلٌকোনো পুরুষএকবচন ২
৪:৩২لِّلرِّجَالِপুরুষেরাবহুবচন ৫
৪:৩৪ٱلرِّجَالُপুরুষগণবহুবচন ৬
১০৪:৭৫ٱلرِّجَالِপুরুষবহুবচন ৭
১১৪:৯৮ٱلرِّجَالِপুরুষবহুবচন ৮
১২৪:১৭৬رِّجَالًاলোকেরাবহুবচন ৯
১৩৫:২৩رَجُلَانِদুজন লোকদ্বিবচন ২
১৪৬:৯رَجُلًاপুরুষমানুষেরএকবচন ৩
১৫৭:৪৬رِجَالٌকিছু লোকবহুবচন ১০
১৬৭:৪৮رِجَالًاলোকদেরকেবহুবচন ১১
১৭৭:৬৩رَجُلٍএকজন লোকেরএকবচন ৪
১৮৭:৬৯رَجُلٍএকজন লোকেরএকবচন ৫
১৯৭:৮১ٱلرِّجَالَপুরুষদেরবহুবচন ১২
২০৭:১৫৫رَجُلًاসত্তর জন লোকবহুবচন ১৩ *
২১৯:১০৮رِجَالٌএমন সব লোকবহুবচন ১৪
২২১০:২رَجُلٍএকজন লোকের কাছেএকবচন ৬
২৩১১:৭৮رَجُلٌপুরুষএকবচন ৭
২৪১২:১০৯رِجَالًاপুরুষদেরকেইবহুবচন ১৫
২৫১৬:৪৩رِجَالًاপুরুষদেরকেইবহুবচন ১৬
২৬১৬:৭৬رَّجُلَيْنِদু ব্যক্তিরদ্বিবচন ৩
২৭১৭:৪৭رَجُلًاএক জাদুগ্রস্থ ব্যক্তিরএকবচন ৮
২৮১৮:৩২رَّجُلَيْنِদু’ব্যক্তিরদ্বিবচন ৪
২৯১৮:৩৭رَجُلًاপুরুষএকবচন ৯
৩০২১:৭رِجَالًاপুরুষদেরকেইবহুবচন ১৭
৩১২৩:২৫رَجُلٌএমন লোকএকবচন ১০
৩২২৩:৩৮رَجُلٌএমন ব্যাক্তিএকবচন ১১
৩৩২৪:৩১ٱلرِّجَالِপুরুষদেরবহুবচন ১৮
৩৪২৪:৩৭رِجَالٌসেসব লোকবহুবচন ১৯
৩৫২৫:৮رَجُلًاএক লোকএকবচন ১২
৩৬২৭:৫৫ٱلرِّجَالَপুরুষদেরবহুবচন ২০
৩৭২৮:১৫رَجُلَيْنِদুজন লোকদ্বিবচন ৫
৩৮২৮:২০رَجُلٌএক লোকএকবচন ১৩
৩৯২৯:২৯ٱلرِّجَالَপুরুষদেরবহুবচন ২১
৪০৩৩:৪لِرَجُلٍকোনো পুরুষের জন্যএকবচন ১৪
৪১৩৩:২৩رِجَالٌপুরুষবহুবচন ২২
৪২৩৩:৪০رِّجَالِكُمْপুরুষেরবহুবচন ২৩
৪৩৩৪:৭رَجُلٍএকজন লোকেরএকবচন ১৫
৪৪৩৪:৪৩رَجُلٌব্যাক্তিএকবচন ১৬
৪৫৩৬:২০رَجُلٌএক লোকএকবচন ১৭
৪৬৩৮:৬২رِجَالًاলোকগুলোবহুবচন ২৪
৪৭৩৯:২৯رَّجُلًاএক ব্যাক্তিএকবচন ১৮
৪৮৩৯:২৯وَرَجُلًاএবং আরেক ব্যাক্তিএকবচন ১৯
৪৯৩৯:২৯لِّرَجُلٍএকজন পুরুষের ওপরএকবচন ২০
৫০৪০:২৮رَجُلٌএক ব্যাক্তিএকবচন ২১
৫১৪০:২৮رَجُلًاএক ব্যাক্তিএকবচন ২২
৫২৪৩:৩১رَجُلٍকোনো ব্যাক্তিএকবচন ২৩
৫৩৪৮:২৫رِجَالٌপুরুষবহুবচন ২৫
৫৪৭২:৬رِجَالٌপুরুষবহুবচন ২৬
৫৫৭২:৬بِرِجَالٍপুরুষদের সাথেবহুবচন ২৭

বিঃদ্রঃ আয়াত ৭:১৫৫ তে শব্দটি আরবী ব্যাকরণের কারণে একবচন হলেও, বাক্যপ্রসঙ্গ অনুসারে বহুবচনে আছে।

পুরুষ – মার (المرء)

পুরুষ অর্থে ব্যাবহৃত শব্দসমূহ যাদের মূল শব্দ (مرا), যার অর্থ পুরুষ :

সম্পূর্ণ গণনাআয়াতআরবী শব্দঅনুবাদবচন
২:১০২ٱلْمَرْءِপুরুষএকবচন ১ *
৪:১৭৬ٱمْرُؤٌا۟পুরুষএকবচন ২ *
৮:২৪ٱلْمَرْءِমানুষএকবচন ৩
১৯:২৮ٱمْرَأَপুরুষএকবচন ৪ *
২৪:১১ٱمْرِئٍমানুষএকবচন ৫
৫২:২১ٱمْرِئٍমানুষএকবচন ৬
৭০:৩৮ٱمْرِئٍমানুষএকবচন ৭
৭৪:৫২ٱمْرِئٍমানুষএকবচন ৮
৭৮:৪০ٱلْمَرْءُমানুষএকবচন ৯
১০৮০:৩৪ٱلْمَرْءُপুরুষএকবচন ১০ *
১১৮০:৩৭ٱمْرِئٍমানুষএকবচন ১১

বিঃদ্রঃ আয়াত ২:১০২, ৪:১৭৬, ১৯:২৮ এবং ৮০:৩৪ এ শব্দসমূহ পরিষ্কারভাবেই, “পুরুষ” অর্থ প্রকাশ করে। তবে অন্যান্য আয়াতে শব্দসমূহ “মানুষ” অর্থ প্রকাশ করছে এবং “মানুষ” শব্দটির মধ্যে নারীরাও পড়ে।

  • এই শব্দটি যদি সবসময়ই “মানুষ” অর্থ প্রকাশ করে তাহলে আয়াত ২:১০২ এর অংশ “স্বামী এবং তার স্ত্রীর মধ্যে” হবে “মানুষ এবং তার স্ত্রীর মধ্যে”, যা পরিষ্কারভাবেই ইংগিত প্রদান করে যে, ইসলাম নারীর অবস্থান সাধারণ মানুষের নিচে আর সাধারণ মানুষ মাত্রই পুরুষ।

পুরুষ – ধাকার (ذكر)

পুরুষ অর্থে ব্যাবহৃত শব্দসমূহ যাদের মূল (ذكر), যার অর্থ “পুরুষ” :

সম্পূর্ন গণনাআয়াতআরবী শব্দঅনুবাদবচন
৩:৩৬ٱلذَّكَرُপুত্রএকবচন ১
৩:১৯৫ذَكَرٍপুরুষএকবচন ২
৪:১১لِلذَّكَرِপুরুষেরএকবচন ৩
৪:১২৪ذَكَرٍপুরুষএকবচন ৪
৪:১৭৬فَلِلذَّكَرِতবে সেই পুরুষেরএকবচন ৫
৬:১৩৯لِّذُكُورِنَاআমাদের পুরুষদের জন্যবহুবচন ১
৬:১৪৩ءَآلذَّكَرَيْنِদুই প্রকার নরদ্বিবচন ১
৬:১৪৪ءَآلذَّكَرَيْنِদুই প্রকার নরদ্বিবচন ২
১৬:৯৭ذَكَرٍপুরুষএকবচন ৬
১০১৬:১৬৫ٱلذُّكْرَانَপুরুষদেরবহুবচন ২
১১৪০:৪০ذَكَرٍপুরুষএকবচন ৭
১২৪২:৪৯ٱلذُّكُورَপুত্র সন্তানবহুবচন ৩
১৩৪২:৫০ذُكْرَانًاপুত্রববহুবচন ৪
১৪৪৯:১৩ذَكَرٍপুরুষএকবচন ৮
১৫৫৩:২১ٱلذَّكَرُপুত্র সন্তানএকবচন ৯
১৬৫৩:৪৫ٱلذَّكَرَপুরুষএকবচন ১০
১৭৭৫:৩৯ٱلذَّكَرَনরএকবচন ১১
১৮৯২:৩ٱلذَّكَرَনরএকবচন ১২

নারী – ইমরা (امرأة)

নারী অর্থে ব্যাবহৃত শব্দসমূহ, যাদের মূল (مرا), যার অর্থ “নারী” :

সম্পূর্ণ গণনাআয়াতআরবী শব্দঅনুবাদবচন
২:২৮২وَٱمْرَأَتَانِএবং দুজন মহিলাদ্বিবচন ১
৩:৩৫ٱمْرَأَتُস্ত্রীএকবচন ১
৩:৪০وَٱمْرَأَتِىএবং আমার স্ত্রীএকবচন ২
৪:১২ٱمْرَأَةٌস্ত্রীএকবচন ৩
৪:১২৮ٱمْرَأَةٌনারীএকবচন ৪
৭:৮৩ٱمْرَأَتَهُۥতার স্ত্রীএকবচন ৫
১১:৭১وَٱمْرَأَتُهُۥএবং তার স্ত্রীএকবচন ৬
১১:৮১ٱمْرَأَتَكَতোমার স্ত্রীএকবচন ৭
১২:২১لِٱمْرَأَتِهِۦٓতার স্ত্রীকেএকবচন ৮
১০১২:৩০ٱمْرَأَتُস্ত্রীএকবচন ৯
১১১২:৫১ٱمْرَأَتُপত্নীএকবচন ১০
১২১৫:৬০ٱمْرَأَتَهُۥতার স্ত্রীএকবচন ১১
১৩১৯:৫ٱمْرَأَتِىআমার স্ত্রীএকবচন ১২
১৪১৯:৮ٱمْرَأَتِىআমার স্ত্রীএকবচন ১৩
১৫২৭:২৩ٱمْرَأَةًনারীএকবচন ১৪
১৬২৭:৫৭ٱمْرَأَتَهُۥতার স্ত্রীএকবচন ১৫
১৭২৮:৯ٱمْرَأَتُস্ত্রীএকবচন ১৬
১৮২৮:২৩ٱمْرَأَتَيْنِদুইজন স্ত্রীলোকদ্বিবচন ২
১৯২৯:৩২ٱمْرَأَتَهُۥতার স্ত্রীএকবচন ১৭
২০২৯:৩৩ٱمْرَأَتَكَআপনার স্ত্রীএকবচন ১৮
২১৩৩:৫০وَٱمْرَأَةًএবং কোনো নারীএকবচন ১৯
২২৫১:২৯ٱمْرَأَتُهُۥতার স্ত্রীএকবচন ২০
২৩৬৬:১০ٱمْرَأَتَপত্নীএকবচন ২১
২৪৬৬:১০وَٱمْرَأَتَএবং পত্নীএকবচন ২২
২৫৬৬:১১ٱمْرَأَتَপত্নীএকবচন ২৩
২৬১১১:১وَٱمْرَأَتُهُۥএবং তার স্ত্রীএকবচন ২৪

 

  • অধিকাংশ সময়েই শব্দটি “স্ত্রী” অর্থে প্রকাশিত হয়েছে।
  • এই শব্দের বহুবচন অনিয়মিত, যা ভিন্ন মূল (نسو) থেকে এসেছে।
  • একই মূল (مرا) থেকে “পুরুষ” (মার) শব্দটি এসেছে।

নারী – নিসা (نساء)

নারী অর্থে ব্যবহৃত শব্দসমূহ যাদের মূল نسو যার অর্থ “নারী” :

সম্পূর্ণ গণনাআয়াতআরবী শব্দঅনুবাদবচন
২:৪৯نِسَآءَكُمْতোমাদের স্ত্রীদিগকেবহুবচন ১
২:১৮৭نِسَآئِكُمْতোমাদের স্ত্রীবহুবচন ২
২:২২২ٱلنِّسَآءَস্ত্রীবহুবচন ৩
২:২২৩نِسَآؤُكُمْতোমাদের স্ত্রীরাবহুবচন ৪
২:২২৬نِّسَآئِهِمْতাদের স্ত্রীবহুবচন ৫
২:২৩১ٱلنِّسَآءَস্ত্রীদেরকেবহুবচন ৬
২:২৩২ٱلنِّسَآءَস্ত্রীদেরকেবহুবচন ৭
২:২৩৫ٱلنِّسَآءِনারীবহুবচন ৮
২:২৩৬ٱلنِّسَآءَস্ত্রীদেরকেবহুবচন ৯
১০৩:১৪ٱلنِّسَآءِনারীবহুবচন ১০
১১৩:৪২نِسَآءِনারীবহুবচন ১১
১২৩:৬১وَنِسَآءَنَاএবং আমাদের স্ত্রীবহুবচন ১২
১৩৩:৬১وَنِسَآءَكُمْও তোমাদের স্ত্রীবহুবচন ১৩
১৪৪:১وَنِسَآءًনারীবহুবচন ১৪
১৫৪:৩ٱلنِّسَآءِমেয়েবহুবচন ১৫
১৬৪:৪ٱلنِّسَآءَস্ত্রীদেরকেবহুবচন ১৬
১৭৪:৭وَلِلنِّسَآءِনারীদেরবহুবচন ১৭
১৮৪:১১نِسَآءًনারীরবহুবচন ১৮
১৯৪:১৫نِّسَآئِكُمْনারীদেরবহুবচন ১৯
২০৪:১৯ٱلنِّسَآءَনারীদেরকেবহুবচন ২০
২১৪:২২ٱلنِّسَآءِনারীবহুবচন ২১
২২৪:২৩نِسَآئِكُمْতোমাদের স্ত্রীবহুবচন ২২
২৩৪:২৩نِّسَآئِكُمُতোমাদের স্ত্রীবহুবচন ২৩
২৪৪:২৪ٱلنِّسَآءِনারীদেরবহুবচন ২৪
২৫৪:৩২وَلِلنِّسَآءِনারীবহুবচন ২৫
২৬৪:৩৪ٱلنِّسَآءِনারীদেরবহুবচন ২৬
২৭৪:৪৩ٱلنِّسَآءَনারীবহুবচন ২৭
২৮৪:৭৫وَٱلنِّسَآءِএবং নারীবহুবচন ২৮
২৯৪:৯৮وَٱلنِّسَآءِনারীবহুবচন ২৯
৩০৪:১২৭ٱلنِّسَآءِনারীদেরবহুবচন ৩০
৩১৪:১২৭ٱلنِّسَآءِনারীদেরবহুবচন ৩১
৩২৪:১২৯ٱلنِّسَآءِনারীদেরকেবহুবচন ৩২
৩৩৪:১৭৬وَنِسَآءًনারীবহুবচন ৩৩
৩৪৫:৬ٱلنِّسَآءَস্ত্রীদেরবহুবচন ৩৪
৩৫৭:৮১ٱلنِّسَآءِনারীদেরকেবহুবচন ৩৫
৩৬৭:১২৭نِسَآءَهُمْমেয়েদেরকেবহুবচন ৩৬
৩৭৭:১৪১نِسَآءَكُمْমেয়েদেরবহুবচন ৩৭
৩৮১২:৩০نِسْوَةٌমহিলারাবহুবচন ৩৮
৩৯১২:৫০ٱلنِّسْوَةِমহিলাবহুবচন ৩৯
৪০১৪:৬نِسَآءَكُمْমেয়েদেরকেবহুবচন ৪০
৪১২৪:৩১نِسَآئِهِنَّনারীদেরকেবহুবচন ৪১
৪২২৪:৩১ٱلنِّسَآءِনারীদেরবহুবচন ৪২
৪৩২৪:৬০ٱلنِّسَآءِনারীবহুবচন ৪৩
৪৪২৭:৫৫ٱلنِّسَآءِনারীদেরকেবহুবচন ৪৪
৪৫২৮:৪نِسَآءَهُمْনারীদেরকেবহুবচন ৪৫
৪৬৩৩:৩০يَٰنِسَآءَহে পত্নীগণবহুবচন ৪৬
৪৭৩৩:৩২يَٰنِسَآءَহে পত্নীগণবহুবচন ৪৭
৪৮৩৩:৩২ٱلنِّسَآءِনারীদেরবহুবচন ৪৮
৪৯৩৩:৫২ٱلنِّسَآءُনারীবহুবচন ৪৯
৫০৩৩:৫৫نِسَآئِهِنَّতাদের সহধর্মিণী নারীবহুবচন ৫০
৫১৩৩:৫৯وَنِسَآءِএবং স্ত্রীগণকেবহুবচন ৫১
৫২৪০:২৫نِسَآءَهُمْতাদের নারীদেরকেবহুবচন ৫২
৫৩৪৮:২৫وَنِسَآءٌএবং নারীবহুবচন ৫৩
৫৪৪৯:১১نِسَآءٌনারীবহুবচন ৫৪
৫৫৪৯:১১نِّسَآءٍনারীবহুবচন ৫৫
৫৬৫৮:২نِّسَآئِهِمতাদের স্ত্রীগণকেবহুবচন ৫৬
৫৭৫৮:৩نِّسَآئِهِمْতাদের স্ত্রীগণকেবহুবচন ৫৭
৫৮৬৫:১ٱلنِّسَآءَস্ত্রীদেরকেবহুবচন ৫৮
৫৯৬৫:৪نِّسَآئِكُمْতোমাদের স্ত্রীদেরবহুবচন ৫৯

নারী – উনছ (أنثى)

নারী অর্থে ব্যাবহৃত শব্দসমূহ যাদের মূল انث যার অর্থ “নারী” :

সম্পূর্ণ গণনাআয়াতআরবী শব্দঅনুবাদবচন
২:১৭৮وَٱلْأُنثَىٰএবং নারীএকবচন ১
২:১৭৮بِٱلْأُنثَىٰনারীর জন্যএকবচন ২
৩:৩৬أُنثَىٰকন্যাএকবচন ৩
৩:৩৬كَٱلْأُنثَىٰকন্যার মতএকবচন ৪
৩:১৯৫أُنثَىٰস্ত্রীলোকএকবচন ৫
৪:১১ٱلْأُنثَيَيْنِۥদুজন নারীদ্বিবচন ১
৪:১১৭إِنَٰثًاনারীবহুবচন ১
৪:১২৪أُنثَىٰনারীএকবচন ৬
৪:১৭৬ٱلْأُنثَيَيْنِদুজন নারীদ্বিবচন ২
১০৬:১৪৩ٱلْأُنثَيَيْنِদুটি মাদীদ্বিবচন ৩
১১৬:১৪৩ٱلْأُنثَيَيْنِদুটি মাদীদ্বিবচন ৪
১২৬:১৪৪ٱلْأُنثَيَيْنِদুটি মাদীদ্বিবচন ৫
১৩৬:১৪৪ٱلْأُنثَيَيْنِদুটি মাদীদ্বিবচন ৬
১৪১৩:৮أُنثَىٰনারীএকবচন ৭
১৫১৬:৫৮بِٱلْأُنثَىٰকোনো কন্যা সন্তানেরএকবচন ৮
১৬১৬:৫৭أُنثَىٰকন্যা সন্তানএকবচন ৯
১৭১৭:৪০إِنَٰثًاকন্যাবহুবচন ২
১৮৩৫:১১أُنثَىٰনারীএকবচন ১০
১৯৩৭:১৫০إِنَٰثًاনারীবহুবচন ৩
২০৪০:৪০أُنثَىٰনারীএকবচন ১১
২১৪১:৪৭أُنثَىٰনারীএকবচন ১২
২২৪২:৪৯إِنَٰثًاকন্যা সন্তানবহুবচন ৪
২৩৪২:৫০وَإِنَٰثًاকন্যাবহুবচন ৫
২৪৪৩:১৯إِنَٰثًاনারীবহুবচন ৬
২৫৪৯:১৩وَأُنثَىٰএবং এক নারীএকবচন ১৩
২৬৫৩:২১ٱلْأُنثَىٰকন্যা সন্তানএকবচন ১৪
২৭৫৩:২৭ٱلْأُنثَىٰনারীবাচকএকবচন ১৫
২৮৫৩:৪৫وَٱلْأُنثَىٰনারীএকবচন ১৬
২৯৭৫:৩৯وَٱلْأُنثَىٰٓনারীএকবচন ১৭
৩০৯২:৩وَٱلْأُنثَىٰٓনারীএকবচন ১৮

উপসংহার

মিরাকল – এক

“কুরআনে আরবী শব্দ রাজুল (পুরুষ) এবং আরবী শব্দ ইমরা (নারী) উভয়ই ২৪ বার উল্লেখিত হয়েছে। এটা একটি মিরাকল এবং এটি প্রকাশ করে, নারী ও পুরুষ উভয়ই সমান” [1] [2]

  • আরবী শব্দ রাজুল এবং ইমরা মোটেও সমান সংখ্যকবার উল্লেখিত নয়। রাজুল (পুরুষ) শব্দটি উল্লেখিত হয়েছে ৫৫ বার এবং ইমরা (নারী) শব্দটি উল্লেখিত হয়েছে ২৬ বার। যারা আলোচ্য দাবিটি করেছেন তারা জেনেবুঝে ইচ্ছে করে বহুবচন শব্দ এবং দ্বিবচন শব্দ এড়িয়ে গেছেন, কেবলমাত্র কুরআনকে ঐশ্বরিকগ্রন্থ বলে প্রমাণ করার জন্য। ইসলামী লেখকরা এভাবেই সাধারণ মুসলিমদের আরও গভীর ধর্মান্ধ করে রাখার উদ্দেশে অমুসলিমদের সামনে ইসলামকে ঐশ্বরিকগ্রন্থ হিসেবে প্রমাণ করার উদ্দেশে মিথ্যার সাহায্য নেয়, নেয় প্রতারণার আশ্রয়।
  • এমনকি আরবী শব্দ রাজুল এবং ইমরা একবচনেও সমান সংখ্যকবার উল্লেখিত নেই। আয়াত ৭:১৫৫ এ রাজুল শব্দটি একবচনে উল্লেখিত থাকলেও আয়াতটি ৭০ জন পুরুষের কথা বলছে এবং সেই হিসেবে শব্দটি এখানে বহুবচনে আছে বলে গণনা করাই ন্যায্য।
  • শব্দসংখ্যায় সমতা কোনোভাবেই প্রমাণ করেনা যে, ইসলাম সামাজিকভাবে, রাজনৈতিকভাবে এবং অর্থনৈতিকভাবে নারী ও পুরুষের সমতা সমর্থন করে।

মিরাকল – দুই

“কুরআনে নারী এবং পুরুষ উভয় শব্দই ২৩ বার উল্লেখিত হয়েছে এবং একটি ভ্রূণের গঠনে ২৩টি ক্রোমোজম মায়ের কাছ থেকে আসে ও ২৩টি ক্রোমোজম বাবার কাছ থেকে আসে।”

  • কুরআনে মোটেও “নারী” ও “পুরুষ” শব্দ সমান সংখ্যকবার উল্লেখিত নেই।
  • কুরআনে “নারী” ও “পুরুষ” উভয় শব্দই ২৩ বার করে উল্লেখিত থাকলেই প্রমাণিত হয়না যে, তা দ্বারা ক্রোমোজমের সংখ্যার ইংগিত দেওয়া হয়েছে। কেননা, ক্রোমোজম বলে যে কোনোকিছুর অস্তিত্ব আছে তা যে কুরআনের বক্তা জানতেন তার কোনো ইংগিত কুরআন এবং হাদিসের ভ্রূণ বিষয়ক বর্ণনা থেকে পাওয়া যায় না।

References: 

1. Statistical Miracle in Quran
2. Equality between men and women in the Noble Quran by Dr. Tariq Al Swaidan:
3. WORD REPETITIONS IN THE QUR’AN

Facebook Comments

Marufur Rahman Khan

Atheist, Feminist

Leave a Reply

%d bloggers like this: