বিতর্কের আহবানের আগে কিছু প্রশ্ন!

প্রচুর সংখ্যক মেসেজ পাই। বেশ কিছু মানুষ জানান, তারা আমার সাথে ইসলাম নিয়ে বিতর্ক করতে আগ্রহী। উনারা প্রত্যেকেই শতভাগ নিশ্চিত, যে তারা আমাকে বিতর্কে ভালভাবেই পরাজিত করবেন। এই লেখাটি তাদের জন্য।
প্রথমেই বলে রাখছি, আপনাকে ছোট করা বা অবহেলার দৃষ্টিতে দেখার কোন অভিপ্রায় আমার নেই। তবে সত্য হচ্ছে, ইতিপূর্বে আমি প্রায় হাজারের ওপর বিতর্কে অংশ নিয়েছি। এবং প্রায়শই দেখতে পেয়েছি, যারা কোমর বেঁধে বিতর্কে আসেন তাদের প্রায় ৯৫ ভাগ জীবনেও কোরআনের কোন সুরা অর্থসহ পড়ে দেখেন নি। হাদিস এবং মুহাম্মদের জীবন তো অনেক দুরের বিষয়। তাদেরকে কোরআনের আয়াত দেখালে, হাদিসের কথা দেখালে বেমালুম বলে বসে, কোরআন হাদিসে এইগুলা নাই। কোরআন খুলে দেখালেও তারা তালগাছ ধরে বসে থাকে। এরপরে শুরু হয় গালাগালি। তাদের মধ্যে পড়ালেখা করে বিতর্কে আসার কোন ইচ্ছাই নেই। নানা ইসলামী আলেম বা পণ্ডিতের তফসির, বা প্রেক্ষাপট বর্ণনা তো অনেক দুরের বিষয়। এসব কুতর্কে আমি আমার মূল্যবান সময় নষ্ট করতে ইচ্ছুক নই। কোরআনে আয়াতের সংখ্যা কয়টা, মুহাম্মদের বিবি এবং যৌনদাসী কয়টা ছিল, এই সাধারণ তথ্যগুলো না জেনেই কেউ পণ্ডিতি করতে আসলে বিরক্ত হই। তাদের যুক্তিবিদ্যার দৌড় হচ্ছে, আল্লায় না থাকলে কুরআন লিখছে ক্যাডা? বা আল্লায় না থাকলে আমরা মারা গেলে কার কাছে যামু? খামু কী? এই রকম হাস্যকর কিছু নমুনা। আপনাদের কাছে অনুরোধ, আপনারা আপনাদের সমপর্যায়ের কারো সাথে তর্ক করুন, সেটাই আপনার জন্য মঙ্গলজনক। তাতে আপনারও উপকার, আমারও অনেক সময় বেঁঁচে যায়।
আপনার সদয় অবগতির জন্য জানাচ্ছি, আপনারা যদি আসলেই আমার সাথে বিতর্কে আগ্রহী হন, তাহলে নিচের প্রশ্নগুলোর সঠিক জবাব দিন। কোরআন হাদিসের আলোকে। তাহলে আমি বুঝতে পারবো, আপনি ইসলাম সম্পর্কে সাধারণ জ্ঞান রাখেন। তখন আমি সিদ্ধান্ত নেবো, আপনার সাথে আমি সময় ব্যয় করতে ইচ্ছুক কিনা। প্রশ্নগুলোর উত্তর সঠিকভাবে দেবেন, ইসলামের আলোকে। সাথে রেফারেন্স বর্ণনা করবেন। রেফারেন্স বিহীন শুধু কথা গ্রহণযোগ্য হবে না। আপনি কী মনে করেন সেটা এখানে বিবেচ্য নয়।

১) আল্লাহ কী নিরাকার? সর্বব্যাপী? আল্লাহ কোথায় সমাসীন?
২) আল্লাহর “আল্লাহ” নামটা কোথা থেকে এলো? আল্লাহর অন্যান্য নামগুলো কী? সেগুলো কোথা থেকে এলো? প্রতিটা নামের অর্থ এবং ইতিহাস কী আপনি জানেন?
৩) আল্লাহ কি নিশ্চিতভাবেই সব জানেন? অতীত ভবিষ্যৎ সম্পর্কে তিনি কি শতভাগ অবগত?
৪) পৃথিবীতে যা কিছু হয় তা কার ইচ্ছায় হয়? আল্লাহর ইচ্ছায় কী হয় আর মানুষের ইচ্ছায় কী হয়?
৫) মানুষের জন্ম ও মৃত্যু কার হাতে? কে সিদ্ধান্ত নেয় কখন মানুষের জন্ম ও মৃত্যু হবে?
৬) কোরান কবে প্রথম লিখিত হয়েছে? সেটা কী লিখিত হবার পরে এডিটিং হয়েছে নাকি যেমন ছিল তেমনই রয়েছে?
৭) কোরআনে সুরার সংখ্যা কত?
৮) কোরআন কী অবিকৃত এবং অপরিবর্তিত? কোন কোন জিনিস পরিবর্তন করা হয়েছে?
৯) শয়তান কে? সে কতবছর ইবাদত করে পদোন্নতি প্রাপ্ত হয়েছিল? শয়তানের অপরাধ কী ছিল?
১০) শয়তান বয়সে, প্রজ্ঞায় এবং আল্লাহর ইবাদতে কতটা সম্মানিত ছিল?
১১) আল্লাহ আগে পৃথিবী সৃষ্টি করেছে নাকি মহাকাশ?
১২) আল্লাহ কয়দিনে সবকিছু সৃষ্টি করেছে?
১৩) আল্লাহর একদিন সমান মানুষের কতদিন?
১৪) ইসলামের মূল ভিত্তি কী? কোরআন হাদিস নাকি মুসলমানরা যা পালন করে সেটা?
১৫) হাদিস সহি কিনা তা বোঝার উপায় কী? সহি আর জাল হাদিস কীভাবে নির্ণয় করা হয়?
১৬) নুর মানে কী? যা প্রতিফলিত আলো নাকি নিজস্ব আলো? প্রতিফলিত আলো হয়ে থাকলে আল্লাহর নূর বলতে কী বোঝানো হয়? আল্লাহ কী অন্য কোথাও থেকে আলো প্রতিফলিত করে? নাকি নুর মানে নিজস্ব আলো?
১৭) পুরুষের বীর্য শরীরের কোন অংশ থেকে উৎপন্ন হয়?
১৮) লবণাক্ত পানি আর মিঠা পানি কী মিশ্রিত হয়?
১৯) পাহাড় কেন সৃষ্টি করা হয়েছে? আকাশ কী পৃথিবীতে ভেঙ্গে পড়তে পারে?
২০) পৃথিবী কী সমতল, গোল, নাকি উট পাখীর ডিমের মত?
২১) মানুষকে কেন সৃষ্টি করা হয়েছে?
২২) শিরক কী? যারা অন্য কোন ধর্ম পালন করেছে ইসলাম বাদে, তাদের স্বর্গে যাওয়ার সম্ভাবনা কতটুকু?
২৩) সাফিয়া কে ছিলেন? তার সাথে মুহাম্মদের বিয়ে কীভাবে হয়েছিল?
২৪) মারিয়া কিবতিয়া কে ছিলেন? তার মারা যাওয়া পুত্র ইব্রাহিমের পিতা কে ছিল? তার সাথে মুহাম্মদের সম্পর্ক কী ছিল?
২৫) ইসলাম গ্রহণের পুরষ্কার কী? ইসলাম ত্যাগের শাস্তি কী?
২৬) মুহাম্মদ তার সমালোচকদের সাথে কী আচরণ করতে নির্দেশ দিয়েছিল?
২৭) আল্লাহ নিজেই নিজের প্রশংসা করে কোরআনে কী কী বলেছে?
২৮) কোরআনে জিহাদ, কাফের হত্যা, কাফেরদের গালাগালি, তুচ্ছতাচ্ছিল্য, মানুষকে ভয় দেখানো এরকম কতটি আয়াত আছে?
২৯) অপরদিকে, সব মানুষ সমান, ধর্মবর্ণ লিঙ্গ গোত্র সব মানুষ সমান এবং সমমর্যাদার, ধর্ম নয়-মানুষের কর্মই আসল, এরকম মানবিক কতগুলো আয়াত আছে?
৩০) কোরআন হাদিসের কোথায় দাসপ্রথা বিলুপ্ত করতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে?
৩১) মহাবিশ্ব সৃষ্টির আগে, ফেরেশতা ও জ্বীনদের সৃষ্টির আগেআল্লাহ কী করতেন?
৩২) মুহাম্মদের স্ত্রী এবং দাসীর সংখ্যা কত?
৩৩) আল্লাহর বাণী কী ছাগলে খেয়ে যেতে পারে, যার ফলে সেই আয়াতটি হারিয়ে যাবে?
৩৪) আল্লাহ খালি মানুষের এবাদত চায়, এত এবাদত দিয়ে আল্লাহ কী করে?
৩৫) আল্লাহ কী প্রাণীর মতই মাঝে মাঝে রেগে যায়? আল্লাহর কী হরমোনাল আবেগ অনুভূতি আছ?
৩৬) আল্লাহ কী দিয়ে তৈরি?

আপাতত এই প্রশ্নগুলোর উত্তর দিন। কোরআন হাদিসের আলোকে। রেফারেন্স সহকারে। সঠিক উত্তর দিতে পারলে আমি বুঝতে পারবো, আপনার সাথে আমি অনর্থক সময় নষ্ট করছি না। তখন আপনাকে স্বাগতম জানাবো বিতর্কে অংশ নেয়ার জন্য।

ধন্যবাদ।

Facebook Comments