যেই বইগুলো না পড়লেই নয়।

লেখকঃ শাহিনুর রহমান শাহিন

একজন আমার কাছে জানতে চেয়েছেন, কোন কোন বইগুলো আমাদের সবার পড়া দরকার। খানিকটা অদ্ভুত, পাশাপাশি খুব কঠিন একটি প্রশ্ন! অপারগতা জানিয়ে বললাম যে, এ সম্পর্কে তো আমার সঠিক ধারনা নেই।

তবে ধারনা পাওয়ার জন্য বিষয়টি নিয়ে গত কয়েকদিন ভেবে দেখেছি। অনেক তো বই আছে। কিন্তু কোন বইগুলো আমাদের এগিয়ে দেবে? শৃঙ্খল ভেঙ্গে হ্নদয়কে মুক্ত করবে? হ্নদয়কে বড়ো করবে? ভাবনার ফলাফল হিশেবে নিজের কাছে মোটামুটি গ্রহনযোগ্য একটি বইয়ের তালিকা তৈরী করে ফেলেছি। আমি জানি, তালিকাটি শুদ্ধ হয়নি। অনেকে এটি পছন্দ করবেন না। তবে কেউ কেউ বিবেচনায় রাখবেন, সেই ভরসায় এখানে উল্লেখ করছি।

প্রথম-পঞ্চম শ্রেণী

০১) ছবিসহ ছড়া।
০২) ঠাকুরমার ঝুলি।
০৩) পপ আপ ফ্যাক্টরি বা সিরিজ কার্টুন।
০৪) গোপাল ভাড়ের গল্প।
০৫) মোল্লা নাসিরুদ্দিনের গল্প।
০৬) ঈশপের গল্প।
০৭) ভূতের গল্প।
০৮) পাগলা দাশুঃ সুকুমার রায়।
০৯) রূপকথার গল্পঃ গ্রিম ভ্রাতৃদ্বয়।।
১০) আলিস অ্যাডভেঞ্চারস ইন ওয়ান্ডারম্যান্ডঃ লুইস ক্যারল।

ষষ্ঠ-অষ্টম শ্রেণী

০১) মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসঃ ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল।
০২) প্রাচীন সভ্যতা সিরিজঃ একেএম শাহনাওয়াজ।
০৩) বাংলাদেশের প্রাচীন কীর্তিঃ আ.কা.মো. যাকারিয়া।
০৪) গালিভার’স ট্রাভেলসঃ জোনাথন সুইফট।
০৫) নাট বল্টুঃ ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল।
০৬) আমার প্রিয় ভৌতিক গল্পঃ হুমায়ুন আহমেদ
০৭) শ্রেষ্ঠ কাকাবাবু সমগ্রঃ সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়।
০৮) শ্রেষ্ঠ শার্লক হোমস সমগ্রঃ আর্থার কোনান ডয়েল।
০৯) বিজ্ঞানী সফদর আলীর মহা মহা আবিষ্কারঃ ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল।
১০) শ্রেষ্ঠ ফেলুদা সমগ্রঃ সত্যজিৎ রায়।
১১) রবিনসন ক্রুশোঃ ড্যানিয়েল ডিফো।
১২) অ্যাডভেঞ্চার অব টম সয়ারঃ মার্ক টোয়েন।
১৩) অ্যাডভেঞ্চার অব হাকলবেরি ফিনঃ মার্ক টোয়েন।
১৪) একাত্তরের দিনগুলিঃ জাহানারা ইমাম।
১৫) জলে ডাঙায়ঃ সৈয়দ মুজতবা আলী।

নবম-দশম শ্রেণী

০১) লাল নীল দীপাবলিঃ ড. হুমায়ুন আজাদ।
০২) হাজার বছর ধরেঃ জহির রায়হান।
০৩) শ্রেষ্ঠ রচনাসমগ্রঃ জুলভার্ন।
০৪) ট্রেজার আইল্যান্ডঃ রবার্ট লুই স্টিভেনশন।
০৫) বৃষ্টির ঠিকানাঃ ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল।
০৬) ফুলের গন্ধে ঘুম আসে নাঃ ড. হুমায়ুন আজাদ।
০৭) শ্রেষ্ঠ গল্পসমগ্রঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।
০৮) শ্রেষ্ঠ গল্পসমগ্রঃ শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়।
০৯) পথের পাঁচালীঃ বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়।
১০) বিষাদ সিন্ধুঃ মীর মশাররফ হোসেন।
১১) একটুখানি বিজ্ঞানঃ ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল।
১২) দেশে বিদেশেঃ সৈয়দ মুজতবা আলী।
১৩) জোছনা ও জননীর গল্পঃ হুমায়ুন আহমেদ।
১৪) গণদেবতাঃ তারাশংকর বন্দ্যোপাধ্যায়।
১৫) কবিঃ তারাশংকর বন্দ্যোপাধ্যায়।
১৬) অসমাপ্ত আত্নজীবনীঃ শেখ মুজিবুর রহমান।
১৭) আকাশ বাড়িয়ে দাওঃ ড. মুহাম্মদ জাফর ইকবাল।
১৮) আমি বীরাঙ্গনা বলছিঃ নীলিমা ইব্রাহিম।
১৯) শ্রেষ্ঠ গল্পসমগ্রঃ সৈয়দ মুজতবা আলী।
২০) সায়েন্স ফিকশান সমগ্র ১ম খণ্ডঃ ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল।
২১) সায়েন্স ফিকশান সমগ্র ২য় খণ্ডঃ ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল।
২২) সায়েন্স ফিকশান সমগ্র ৩য় খণ্ডঃ ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল।
২৩) তিতাস একটি নদীর নামঃ অদ্বৈত মল্লবর্মন।
২৪) পদ্মা নদীর মাঝিঃ মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়।

একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণী

০১) আরো একটু খানি বিজ্ঞানঃ ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল।
০২) আল কোরানের বাংলা অনুবাদ।
০৩) সহিহ বোখারির বাংলা অনুবাদ।
০৪) লাল সালুঃ সৈয়দ ওয়ালীউল্লাহ।
০৫) শ্রেষ্ঠ কবিতাসমগ্রঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।
০৬) শ্রেষ্ঠ কবিতাসমগ্রঃ কাজী নজরুল ইসলাম।
০৭) শ্রেষ্ঠ গল্পসমগ্রঃ হুমায়ুন আহমেদ।
০৮) শেষের কবিতাঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।
০৯) দেবদাসঃ শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়।
১০) তবুও একদিনঃ সুমন্ত আসলাম।
১১) কপাল কুণ্ডলাঃ বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়।
১২) গেরিলা থেকে সম্মুখযুদ্ধেঃ মাহবুব আলম।
১৩) আনা ফ্রাংকের ডায়েরি।
১৪) রচনাসমগ্রঃ আরজ আলী মাতুব্বর।
১৫) আত্নস্মৃতিঃ হাসান আজিজুল জক।
১৬) কৃতদাসের হাসিঃ শওকত ওসমান।
১৭) শ্রেষ্ঠ নাটকসমগ্রঃ উইলিয়াম শেক্সপিয়ার।
১৮) আমার একাত্তরঃ ড. আনিসুজ্জামান।
১৯) অলৌকিক নয়, লৌকিকঃ প্রবীর ঘোষ।
২০) আমি কেন ঈশ্বরে বিশ্বাস করি নাঃ প্রবীর ঘোষ।
২১) কলামসংগ্রহঃ তসলিমা নাসরিন।
২২) নন্দিত নরকেঃ হুমায়ুন আহমেদ।
২৩) সূর্য দীঘল বাড়িঃ আবু ইসহাক।
২৪) নুরজাহানঃ ইমদাদুল হক মিলন।
২৫) নিমন্ত্রণঃ তসলিমা নাসরিন।
২৬) গর্ভধারিনীঃ সমরেশ মজুমদার।
২৭) মেমসাহেবঃ নিমাই ভট্টাচার্য।
২৮) লা মিজারেবলঃ ভিক্টর হিউগো।
২৯) দ্যা মাদারঃ ম্যাক্সিম গোর্কি।
৩০) দ্যা গডফাদারঃ মারিও পুজো।
৩১) ক্রাইম এন্ড দ্যা পানিশমেন্টঃ ফিউদর দস্তয়ভস্কি।
৩২) দ্বিখণ্ডিতঃ তসলিমা নাসরিন।
৩৩) পাক সার জমিন সাদ বাদঃ ড. হুমায়ুন আজাদ।
৩৪) দেয়ালঃ হুমায়ুন আহমেদ।
৩৫) জীবন কথাঃ জসিম উদদীন
৩৬) ভারতীয় দর্শনঃ দেবীপ্রসাদ চট্টোপাধ্যায়
৩৭) মহাবিশ্বঃ ড. হুমায়ুন আজাদ।

বিশ্ববিদ্যালয়

০১) বাংলাদেশ ইতিহাস পরিক্রমাঃ কে.এম. রাইছ উদ্দিন খান।
০২) শ্রেষ্ঠ গল্পসমগ্রঃ মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়।
০৩) সেই সময়ঃ সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়।
০৪) প্রথম আলোঃ সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়।
০৫) পূর্ব পশ্চিমঃ সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়।
০৬) তাফরিরে ইবনে কাসির অথবা তাফরিরে আল তাবারি।
০৭) সিরাতুন্নবিঃ ইবনে হিশাম।
০৮) হাজার বছরের বাঙালি সংস্কৃতিঃ গোলাম মুরশিদ।
০৯) আরন্যকঃ বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়।
১০) গোরাঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।
১১) চোখের বালিঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।
১২) শ্রেষ্ঠ কবিতাসমগ্রঃ ড. হুমায়ুন আজাদ।
১৩) শ্রেষ্ঠ কবিতাসমগ্রঃ জীবনানন্দ দাশ।
১৪) পুতুল নাচের ইতিকথাঃ মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়।
১৫) দিবারাত্রির কাব্যঃ মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়।
১৬) শ্রেষ্ঠ হিমুসমগ্রঃ হুমায়ুন আহমেদ।
১৭) স্বরূপের সন্ধানেঃ ড. আনিসুজ্জামান।
১৮) পথের দাবীঃ শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়।
১৯) শ্রীকান্তঃ শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়।
২০) শূন্য থেকে মহাবিশ্বঃ ড. মীজান রহমান ও ড. অভিজিৎ রায়।
২১) Jinnah India Partition Independence: Jaswant Singh.
২২) শবনমঃ সৈয়দ মুজতবা আলী।
২৩) Ispat: Nikolai Ostrovsky.
২৪) কতো নদী সরোবরঃ ড. হুমায়ুন আজাদ।
২৫) আমরা কি এই বাংলাদেশ চেয়েছিলামঃ ড. হুমায়ুন আজাদ।
২৬) The Renaissance: Will Durant.
২৭) হাজার চুরাশির মাঃ আশাপূর্ণা দেবী।
২৮) সংশপ্তকঃ শহিদুল্লাহ কায়সার।
২৯) শ্রেষ্ঠ কবিতাসমগ্রঃ সুধীন্দ্রনাথ দত্ত।
৩০) শ্রেষ্ঠ কবিতাসমগ্রঃ মাইকেল মধুসূদন দত্ত।
৩১) ছাপ্পান্ন হাজার বর্গমাইলঃ ড. হুমায়ুন আজদ।
৩২) সবকিছু ভেঙ্গে পড়েঃ ড. হুমায়ুন আজাদ।
৩৩) Eugene Onegin: Alexander Pushkin.
৩৪) Capital: Karl Marx.
৩৫) আত্নঘাতী বাঙালিঃ নীরদ সি চৌধুরী।
৩৬) The Swerve: Poggio Braccilioni.
৩৭) The Kite Runner: Khaled Hosseini.
৩৮) প্রদোষে প্রাকৃতজনঃ শওকত আলী।
৩৯) শাহনামাঃ শেখ সাদী।
৪০) The Best Poems: John Keats.
৪১) To the Lighthouse: Virginia Woolf.
৪২) Old Man and the Sea: Ernest Hemingway.
৪৩) নারীঃ ড. হুমায়ুন আজাদ।
৪৪) The Second Sex: Simone de Beauvoir.
৪৫) Long Walk to Freedom: Nelson Mandela.
৪৬) পার্থিবঃ শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়।
৪৭) নিষিদ্ধ লোবানঃ সৈয়দ শামসুল হক।
৪৮) মূলধারা’ ৭১: মঈদুল হক।
৪৯) ভাব-বুদ্বুদঃ আহমদ শরীফ।
৫০) লৌহকপাটঃ জরাসন্ধ্র।
৫১) দৃষ্টিপাতঃ যাযাবর।
৫২) শ্রেষ্ঠ কবিতাসমগ্রঃ শামসুর রহমান।
৫৩) শ্রেষ্ঠ কবিতাসমগ্রঃ নির্মলেন্দু গুণ।
৫৪) ওংকারঃ আহমদ ছফা।
৫৫) চিলেকোঠার সেপাইঃ আখরাতুজ্জামান ইলিয়াস।
৫৬) The Story of my Life: Helen Keller.
৫৭) আমার অবিশ্বাসঃ ড. হুমায়ুন আজাদ।
৫৮) বিশ্বাসের ভাইরাসঃ ড. অভিজিৎ রায়।
৫৯) Great Expectations: Charles Dickens.
৬০) One Hundred Years of Solitute: Gabriel Garcia Marquez.
৬১) ভোলগা থেকে গঙ্গাঃ রাহুল সাংকৃত্যায়ন।
৬২) মুক্তচিন্তাঃ রতনতনু বসু।
৬৩) War and Peace: Leo Tolstoy.
৬৪) Madame Bovary: Gustave Flaubert.
৬৫) বাংলা ভাষা আন্দোলন ও তৎকালীন রাজনীতিঃ বদরুদ্দিন উমর।
৬৬) আলো হাতে চলিয়াছে আঁধারের যাত্রীঃ ড. অভিজিৎ রায়।
৬৭) Dolls House: Henrik Ibsen.
৬৮) Deception Point: Dan Brown.
৬৯) The Arabs a Short History: Phillip K. Hitti.
৭০) নবী মুহাম্মদের ২৩ বছরঃ আলী দস্তি।
৭১) Anna Karenina: Leo Tolstoy.
৭২) Faust: Johann Goethe.
৭৩) ইসলাম বিতর্কঃ শামসুজ্জোহা মানিক সম্পাদিত।
৭৪) ভারত উন্নয়ন ও বঞ্চনাঃ অমর্ত্য সেন।
৭৫) বাঙালি জীবনে রমনীঃ নীরদ সি চৌধুরী।
৭৬) Illiad and Odyssey: Homer.
৭৭) The Best Stories: Guy de Maupassant.
৭৮) বিবর্তনের পথ ধরেঃ বন্যা আহমেদ।
৭৯) অবিশ্বাসের দর্শনঃ ড. অভিজিৎ রায় ও রায়হান আবীর।
৮০) বাংলার সাধনাঃ ক্ষিতিমোহন সেন।
৮১) My Childhood: Maxim Gorky.
৮২) Paradise Lost and Paradise Regained: John Milton.
৮৩) মুক্তির সংগ্রামঃ ড. আনিসুজ্জামান।
৮৪) সীমাবদ্ধতার সূত্রঃ ড. হুমায়ুন আজাদ।
৮৫) শ্রেষ্ঠ নাটকসমগ্রঃ সেলিম আল দীন।
৮৬) Power: Bertrand Russell.
৮৭) শ্রেষ্ঠ প্রবন্ধসমগ্রঃ আহমদ শরীফ।
৮৮) History of Western Philosophy: Bertrand Russell.
৮৯) শ্রেষ্ঠ কবিতাসমগ্রঃ সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়।
৯০) শ্রেষ্ঠ কবিতাসমগ্রঃ শক্তি চট্টোপাধ্যায়।
৯১) দুই বাংলার যুক্তিবাদীদের চোখে ধর্মঃ প্রবীর ঘোষ ও ওয়াহিদ রেজা সম্পাদিত।
৯২) The Rape of Bangladesh: Anthony Mascarenhas.
৯৩) Bangladesh a Legacy of Blood: Anthony Mascarenhas.
৯৪) শ্রেষ্ঠ কবিতাসমগ্রঃ বুদ্ধদেব বসু।
৯৫) Why I am not a Christian: Bertrand Russell.
৯৬) The God Delusion: Richard Dawkins.
৯৭) পার্থিবঃ সৈকত চৌধুরী ও অনন্ত বিজয় দাশ।
৯৮) From Two Economies to Two Nations: Dr. Rehman Sobhan.
৯৯) বাংলা ও বাঙ্গালির কথাঃ আবুল মোমেন।
১০০) আমরা বাংলাদেশী না বাঙালিঃ আবদুল গাফফার চৌধুরী।

সবার শেষে আরো কিছু কথা। কম বয়সী শিশুদেরকে বই পাঠ করে শোনাতে হয়। এক্ষেত্রে উচ্চারনটি সুন্দর হওয়া বাঞ্ছনীয়। কেননা, পিতা-মাতার উচ্চারন শিশুর কথা বলার ভঙ্গিমার উপর প্রচুর প্রভাব ফেলে। আর এই বয়সটা হচ্ছে বই পড়ার অভ্যাস গড়ে তোলার জন্য শ্রেষ্ঠ সময়। তাই ব্যপারটা গুরুত্ব সহকারে নেয়া দরকার।

বইগুলোর গুরুত্বপূর্ণ অংশ কলম বা পেন্সিল দিয়ে দাগিয়ে রাখলে পরবর্তী সময়ে খুব সুবিধা হবে। এই অভ্যাসটি আমার কখনোই ছিল না। এখন বুঝতে পারছি, এটি থাকলে খুব ভালো হতো। আশা করি, আপনারা কেউ আমার মতো ভুল করবেন না।

ইদানীং আরেকটি অভ্যাস আয়ত্ব করতে চেষ্টা করছি। কোন একটি বই পড়া শেষ হয়ে যাওয়ার পর সেটির মূলকথা লিখে রাখা। বইয়ের বিষয়বস্তু মনে রাখার ক্ষেত্রে এটি খুবই কার্যকরী একটি পদ্ধতি। চমৎকার এই আইডিয়াটি পেয়েছি আহমদ ছফার ‘যদ্যপি আমার গুরু’ বইতে।

তালিকাটি তৈরী করতে দু’জন বড়ো ভাই অনেক মূল্যবান পরামর্শ দিয়েছেন। তারা এটাও পরামর্শ দিয়েছেন যে, বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের ইংলিশ বইগুলো সরাসরি ইংলিশ ভাষায় পড়তে হবে। আর এগুলো বিন্যাসের ক্ষেত্রে আরেকজন বড়ো ভাইয়ের ফেইসবুকে দেয়া স্ট্যাটাসের খানিকটা অনুকরন করেছি। ক্যাম্পাসের এই তিনজন বড়ো ভাইকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

Facebook Comments

9 thoughts on “যেই বইগুলো না পড়লেই নয়।

  • January 16, 2017 at 4:34 pm
    Permalink

    ক্লাস টেনে পড়ি। বয়সউপযোগী বই নির্বাচন করতে প্রব্লেম হয়। এই তালিকাটা হেল্প করবে। তালিকাটা আরেকটু লম্বা হতে পারত। ✌

    Reply
  • January 16, 2017 at 4:42 pm
    Permalink

    বইগুলো কোথায় পাওয়া যাবে তথ্য সহ দিলে ভাল হত।

    Reply
  • January 27, 2017 at 10:01 am
    Permalink

    আমি আন্তরিকভাবে লেখককে ধন্যবাদ দিতে চাই, মননশীল বই বাছাই করার জন্য।

    Reply
  • March 26, 2017 at 6:59 am
    Permalink

    আরজ আলী মাতুব্বার মিসিং কেন?

    Reply
    • March 26, 2017 at 7:02 am
      Permalink

      নাহ! ঠিক আছে! একাদশ – দ্বাদশে আছে!

      Reply
  • April 7, 2017 at 5:21 pm
    Permalink

    হাজার চুরাশির মা: মহাশ্বেতা দেবী

    Reply
  • February 8, 2018 at 1:32 am
    Permalink

    কিছু কিছু বই এখনোও পড়া হয়নি,,তবে অধিকিংশ বইই পড়েছি৷৷

    Reply
  • September 10, 2018 at 7:30 pm
    Permalink

    The Swerve is written by Stephen Greenblatt.

    Reply

Leave a Reply

%d bloggers like this: