নাস্তিকতার বিরুদ্ধে কিছু মিথ | স্যাম হ্যারিস

স্যাম বেঞ্জামিন হ্যারিস (ইংরেজি ভাষায়: Sam Benjamin Harris) একজন মার্কিন লেখক, দার্শনিক, ধর্মের সমালোচক ও ব্লগার। তিনি বৈজ্ঞানিক সংশয়বাদ এবং

Read more

এখনো বিষের পেয়ালা ঠোঁটের সামনে তুলে ধরা হয় নি, তুমি কথা বলো

[ পুরনো একটি লেখা, নাস্তিক্য ডট কমের পাঠকদের জন্য আবারো দেয়া হলো। ] অবশেষে মাননীয় আদালত স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে শুরু

Read more

সুরা তাহরীম এর তাফসির – ইবনে কাসীর

এই আয়াতটি নিয়ে দীর্ঘ আলাপ আলোচনা এবং তর্ক বিতর্কের সূত্র ধরে গুরুত্বপূর্ণ রেফারেন্স হিসেবে কোরআনের সবচাইতে প্রখ্যাত তাফসিরকারক আল্লামা ইবনে কাসীরের গ্রন্থ থেকে সরাসরি তুলে দেয়া হলো ওই সুরার তাফসীর এবং প্রাসঙ্গিক হাদিসটি

Read more

হযরত আদমের সৃষ্টি প্রসঙ্গে – ইবনে কাসীর

“ আল-বিদায়া ওয়ান নিহায়া ” Al Bidaya Wal Nihaya (Download Link) প্রখ্যাত মুফাসসির ও ইতিহাসবেত্তা আল্লামা ইবনে কাসীর (রহ) প্রণীত একটি সুবৃহৎ ইতিহাস গ্রন্থ। এই গ্রন্থ থেকে কোরআন হাদিস হযরত আদমের সৃষ্টি প্রসঙ্গে

Read more

৭২ জন বেহেশতী কুমারী (হুরী)

এই নিবন্ধে কোরআন, হাদিস এবং ইসলামিক স্কলারদের উক্তিতে উঠে আসা ৭২ হুরী সংক্রান্ত বিষয়ে আলোচনা করা হয়েছে এবং এই বিষয়টি নিয়ে

Read more

নাস্তিকদের অধিকার আদায়ের আন্দোলন

নাস্তিকদের অধিকার আদায়ের আন্দোলন – বাংলাদেশে নাস্তিকরা তাদের অধিকার আদায়ে আনুষ্ঠানিক আন্দোলন শুরু করলে তার ৬ দফা দাবি হতে পারে নিম্নরূপ

Read more

নাজিলের সময়ানুক্রমে কুরআনের সূরাসমূহের সিরিয়াল

বর্তমান কুরআনের সূরাসমূহের সিরিয়াল সূরাসমূহের নাজিলের সময়ানুক্রমে সাজানো নেই, বরং এলোমেলো অবস্থায় আছে। কুরআন বুঝার জন্য কুরআনের সূরাসমূহের নাজিলের সময়ানুক্রম

Read more

ধর্ম ও ধর্মেশ্বর – প্রথম পর্ব

বিশ্বের প্রতিটা মানুষই অসাধারণ এক জিজ্ঞাসু মন নিয়ে জনগণ করে। জন্মের পর হতেই দু-চোখে দেখতে পায় রঙিন পৃথিবী, স্পর্শ ইন্দ্রিয়ের স্বাদ নিতে হাতের মাধ্যমে ছুঁয়ে দেখতে চায় জগতের সবকিছু, পরিশেষে স্বাদ ইন্দ্রিয় দ্বারা বুঝতে হাতের নিকট যা পায় তার সব কিছুই মুখে নিয়ে দেখতে চায় একটি শিশু। আপনি প্রত্যেকটি ছোট শিশু মাঝেই এই গুনগুলি দেখতে পাবেন। এরপর যখন বড় হতে থাকে, তখন বাড়তে থাকে জ্ঞান, জন্ম নিতে থাকে প্রশ্নের। এটা কি, ওটা কি, এটা কেন হল, সেটা কিভাবে হল ইত্যাদি রকমের প্রশ্ন চলতেই থাকে। উত্তর পেলেই জিজ্ঞাসু মন শান্ত হয়ে যায়, নয়তো জিজ্ঞাসু মন কৌতূহলী হয়ে উঠে জানার পিপাসায়, চলতে থাকে তার অনুসন্ধান, সত্যানুসন্ধান।

Read more

বিগ ব্যাং থেকে মহাবিশ্ব

একটা সময় ব্যর্থ হয়ে তারা ঈশ্বর নামক এক অদ্ভুতুড়ে স্রষ্টার কল্পনা করে নিতে বাধ্য হয়েছিল এসব সৃষ্টির পেছনে। কারণ, তাদের জ্ঞান আর সামনের দিকে এগোচ্ছিল না। একেক গোত্রের মানুষ একেক রকমের ভিন্ন ভিন্ন নামের ঈশ্বরকে জন্ম দিতে দিতে পৃথিবীটাকে বাহারি ঈশ্বরের একটা বিরাট ভাগার তৈরি করে ফেলেছিল, যার ফলশ্রুতিতে পৃথিবীতে ঘটে গিয়েছিল এক মহা ঈশ্বর বিস্ফোরণ। সে বিস্ফোরণ শুরু হয়েছিল প্রায় দু লক্ষ বছর পূর্বে যখন প্রথম এই বুদ্ধিমান প্রাণীর আগমন ঘটেছিল এবং যার অবসান ঘটেছে মাত্র ১৪৫০ বছর পূর্বে। এর মধ্যে জন্ম নিয়েছে প্রায় ৪২০০ ঈশ্বর। কত সব বিচিত্র নাম সেসব ঈশ্বরের, আর কত সব বাহারি ক্যারেক্টার সেসব ঈশ্বরের, যা চিন্তাই করা যায় না।

Read more